Where can I find freelancing work? | Job N Style

Published Date: Wednesday, May 27, 2020
Where can I find freelancing work

প্রিয় বন্ধুরা, আমার আজকের এই টিউটোরিয়ালটি শুধুমাত্র নতুনদের জন্য। যারা ফিল্যান্সার হিসেবে মার্কেটপ্লেসে প্রতিষ্ঠিত হতে চান, যারা কাজ শিখে ইনকাম করতে
চান। আজ আমরা আলোচনা করবো কোথায় ফিল্যান্সদের জন্য কাজ রয়েছে সে বিষয়ে। অর্থাৎ কোথায় কোথায় আপনি আপনার যোগ্যতা ও দক্ষতা অনুযায়ী কাজ করে নিজেকে
একজন সেরা মানের ফিল্যান্সার হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে পারবেন। অনলাইনে কাজ পেতে চাইলে প্রতিটি প্লাটফরমে একাউন্ট খুলে কাজ শুরু করতে পারেন। প্রতিদিন নতুন নতুন আপডেট তথ্য পেতে আমাদের ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে যুক্ত হোন। শেয়ার করে বন্ধুদের জানিয়ে দিন।

ফ্রিল্যান্সিং কাজের সাইট

Upwork.com– upwork হলো বিশ্বের সর্ববৃহৎ ফ্রিল্যান্সিং এরিয়া। যেখানে ব্যক্তিগত একাউন্ট কিংবা ব্যবসায়িক একাউন্ট খুলো কাজ পাওয়া যায়। সারা বিশ্বব্যাপি
upwork এর কার্যক্রম রয়েছে। ১৯৯৯ সালে Elance নামে এর কার্যক্রম শুরু হয়। ২০০৩ সালে নাম পরিবর্তন হয়ে oDesk হয়। ২০১৩ সালে এসে হয় Elance-oDesk.
সবশেষ ২০১৫ সালে Upwork নাম হয়। প্রতিষ্ঠানটির হেডকোয়াটার Santa Clara, California, US.এটি একটি পাবলিক লিমিটেড কোম্পানি হিসেবে নিউইয়র্ক স্টক এক্সচেঞ্জের তালিকাভুক্ত। শুরুর দিকে ফিল্যান্সারদের আয়ের উপর কোন ফি কাটতো না upwork.শুধুমাত্র বায়ারের থেকেই কাটতো। কিন্তু বর্তমানে কোম্পানিটি তাদের নিয়ম-কানুনে যথেষ্ঠ পরিবর্তন এনেছি। যারা ফিল্যান্সার তাদের ইনকামের ২০% Upwork ফি হিসেবে রেখে দেয়। এবং কোন কাজের জন্য আবেদন করতে গেলেও আবেদন ফি কাটে। তারপরও Upwork হলো ফিল্যান্সারদের একমাত্র ভরসা কারণ একে প্রচুর কাজ পাওয়া যায়। আপনি নিদিষ্ট বিষয়ে নিজেকে দক্ষ করে তুলে একজন সফল ফিল্যান্সার হতে পারেন। ক্লায়েন্ট আপনার কাজে সন্তুষ্ঠ হয়ে বেস্ট রিভিও দিলে পরবর্তীতে আরও কাজ পাবেন। upwork এ কাজ করতে হলে একাউন্ট খুলে ১০০% কমপ্লিট করতে হবে। আসরা পরবতী সময়ে আলোচনা করবো কিভাবে upwork এ প্রোফাইল ১০০% করবেন ও বিভিন্ন টেস্টে সফলতার সহিত উত্তীর্ণ হবেন।

Peopleperhour– ফিল্যান্সাদের কাজের জন্য যুক্তরাজ্যভিত্তিক জনপ্রিয় মার্কেটপ্লেস হলো peopleperhour. এখানে সর্বনিম্ন প্রতি ঘন্টা কাজ করে আপনি ১০ ডলার ইনকাম করতে পারবেন। কোম্পানিটি ট্রাস্টেট একটি সাইট, ১০০% প্রেমেন্ট ভেরিফাইড। এখানে কাজ পেতে হলে আপনাকে সাইন আপ করতে হবে সাইটে গিয়ে। তারপর আপনার প্রোফাইলের বর্ণনা দিবেন। আপনি যেই কাজে স্পেশালিস্ট সেটি হাইলাইটস করবেন।

GoLance– আপনি যদি খুব এক্সপার্ট হোন তাহলে আপনার আয় আরও বৃদ্ধি পাবে goLancegolance কাজ করে। অভিজ্ঞদের জন্য প্রচুর কাজের চাহিদা রয়েছে এখানে । তাছাড়া আপনি এই সাইটের রেফারেল ব্যবহার করেও ইনকাম করতে পারবেন। অর্থাৎ আপনার রেফারেন্স লিংকে ক্লিক করে কেউ একাউন্ট খুলে কাজ করলে আপনি সেই ইনকামের ১% যোগ হবে আপনার একাউন্টে। তাই আর দেরি না করে আজই কাজ শুরু করুন।

Guru– James Slavet ১৯৯৮ সালে Guru প্রতিষ্ঠা করেন। কোম্পানিরটির হেডকোয়াটার San Francisco, California, United States. এটি একটি প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানি। ফিল্যান্সার খোঁজা এবং জব খোঁজা দুইটির করা যায় এখানে। প্রচুর কাজ রয়েছে সাইটটিতে। এখানে কাজ পেতে হলে আপনাকে একাউন্ট ১০০% কমপ্লিট করতে হবে। দক্ষতার সহিত কায়েন্টের কাজ সম্পন্ন করতে পারলে প্রচুর কাজ পাবেন। তাই নিজের আত্নবিশ্বাস নিয়ে কাজ করুন।

Fiverr– ফিল্যান্সারদের জন্য অন্যতম জনপ্রিয় একটি মার্কেট প্লেস হলো fiverr. এখানে খুব সহাজএ কাজ পাওয়া যায় তবে আপনাকে সেই কাজ পাওয়ার জন্য নিজেকে যোগ্য করে তুলতে হবে। আপনি এখানে গিগ তৈরি করে পরবর্তীতে সেল করতে পারবেন। অর্থাৎ আপনি যেই সার্ভিসটি দিবেন কায়েন্টকে সেটির বিস্তারিত বর্ণনা দিয়ে একটি গিগ তৈরি করে রাখবেন আপনার প্রোফাইলে। ক্লায়েন্ট তাহার কাজ সম্পন্ন করার জন্য আপনাকে খুঁজে নিবে। এখানে কাজের ইনকাম খুব সীমিত হলেও পরবর্তীতে প্রচরি কাজ পাওয়া যায়। ২০১০ সালে ইসরাইলের জেরুজালেমে এটি প্রতিষ্ঠিত হয় এবং বিশ্বব্যাপি কোম্পানিটি তাদের কার্যক্রম পরিচালনা করছে। এখানে English Language, Spanish Language, French language, Dutch language, Portuguese Language এর কাজ পাওয়া যায়। একাউন্ট খোলাও খুব সহজ। তাই দেরি না করে নিজেকে মুক্ত পেশার সাথে জড়িয়ে নিতে কাজ শুরু করুন।

Freelancer.com– অস্ট্রেলিয়াভিত্তিক crowdsourcing marketplace website. যেখানে ক্লায়েন্ট ফিল্যান্সারদের দিয়ে তাদের নিদিষ্ট বাজেটের মধ্যে কাজ
করিয়ে নিতে পারে। কাজ শুরু করতে চাইলে প্রথমেই আপনাকে একাউন্ট খুলতে হবে। freelancer এর হেডকোয়াটার অস্ট্রেলিয়ার রাজধানী সিডনিতে অবস্থিত। প্রতিষ্টানটির সিইও Matt Barrie. তিনি ফেরুয়ারী ২০১০ সাল থেকে বর্তমা নসময় (২০২০) পর্যন্ত দায়িত্বে আছেন।

Designhill– Designhill হলো ডিজাইনারদের কাজের একটা প্লাটফরম। সকল ধরণের ক্রিয়েটিভ ডিজাইন আপনি খুব সহজেই ফিল্যান্সারদের দিয়ে করিয়ে নিতে
পারবেন। কিন্তু আপনি যদি একজন ডিজাইনার হোন তাহলে এখানে একাউন্ট খুলে গ্রাহকের কাজ করে প্রচুর আয় করতে পারবেন। Designhill এর সার্ভিসসমূহ হলো:- Logos,
Websites, T-shirts & More!

Hireable– যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক একটি মার্কেটপ্লেস। ক্যালিফোনিয়াতে এটির হেড অফিস।

99designs– আপনি কি একজন ফ্রিল্যান্সিং /ডিজাইনার? তাহলে এই মার্কেটপ্লেসটি আপনার জন্য। ক্রিয়েটিভ ডিজাইন ভিত্তিক সকল ধরণের কাজ পাওয়া যায় ও আপনি ইচ্ছা করলে আপনার প্রতিষ্ঠানের জন্য যে কোন ডিজাইনের কাজ করিয়ে নিতে পারবেন। অস্ট্রেলিয়া ভিত্তিক কোম্পানিটি প্রতিষ্ঠা করেন Matt Mickiewicz ও Mark Harbottle. এটির হেডকোয়াটার মেলবোর্নে অবস্থিত। একাউন্ট খুলুন আর কাজ শুরু করুন।

writeraccess– আপনি কি একজন কনটেন্ট রাইটার? ওয়াল্ডওয়াইড আর্টিকেল লিখতে পারেন? তাহলে দেরি কেন আপনার জন্যই অপেক্ষা করছে writeraccess. প্রচুর কাজের চাহিদা রয়েছে এখানে। আপনি চাইলেই আপনার মেধা, শ্রম কাজে লাগিয়ে প্রচুর আয় করতে পারবেন। এখানে কাজের ধরণ অনুযায়ী পেমেন্ট হেন্ডসাম। ২০০৮ সালে কোম্পানিটি যাত্রা শুরু করে। এটির হেডকোয়াটার Greater Boston Area, East Coast, New England.

microworkers.com– খুব ছোট ছোট কাজের একটি প্লাটফরম হলে microworkers. এখানে ১০ সেন্ট থেকে কাজ পাওয়া যায় যে কাজগুলো খুবই সহজসাধ্য। আপনি
চাইলে এখানে কাজ করে প্রচুর ইনকাম করতে পারবেন।

seoclerk– এসইও কাজের জন্য অন্যতম একটি মার্কেট প্লেস হলো seoclerk. আপনি যদি একজন এসইও এক্সপার্ট হোন তাহলে এখানে প্রোফাইল খুলে ইনকাম
শুরু করুন।

iwriter– Article writer or content writer দের একটি বিশাল কাজের ক্ষেত্র হলো iwriter. এখানে প্রতি মাসে গড়ে 54,340 টি কাজ থাকে। 113,097 নিবন্ধিত রাইটার রয়েছে এখানে (2020 মে পর্যন্ত)। ভাল মানের আর্টিকেল রাইটার হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে চাইলে আজই যুক্ত হোন বিশ্বব্যাপী এই সাইটির সাথে আর আপনার মেধা ছড়িয়ে দিন সমগ্র পৃথিবীতে।

TopTal– Taso Du Val ২০১০ সালে ক্যালিফোরনিয়ার সিলিকেন ভ্যালিতে কোম্পানিটি প্রতিষ্ঠা করেন। বর্তমানে TopTal কোম্পানির কোন হেডকোয়াটার নেই।
Toptal একটি এক্সক্লুসিভ নেটওয়ার্ক যেটি software developers, designers, finance experts, product managers, and project managers নিয়ে বিশ্বব্যাপী কাজ করে। Top companies hire Toptal freelancers for their most important projects.

codeable.io- Hire the best WordPress developers.ওয়ার্ডপ্রেস ডেভেলপারদের জন্য ফিল্যান্সিংয়ের বৃহৎ একটি প্লাটফরম হলো codeable. আপনি যদি নিজেকে একজন দক্ষ ওয়েব ডেভেলপার হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে চান তাহলে কাজ শুরু করুন।

Belancer- belancer বাংলাদেশি ফ্রিল্যান্সিং সাইট। এখানে প্রচুর কাজের চাহিদা রয়েছে। যেহেতু আপনি বাংলাদেশি তাই শুরুটা এখান থেকেও করতে পারেন। প্রচুর বাংলাদেশি কোম্পানি belancer থেকে কাজ করিয়ে নেয়। এখানে কাজ পাওয়া অনেক সহজ। দরকার আপনার ইচ্ছাশক্তি, দক্ষতা সময়।

এছাড়াও আরো ফ্রিল্যান্সিং ওয়েবসাইট রয়েছে যেখানে প্রচুর কাজ রয়েছে ফিল্যান্সারদের জন্য।

Aquent.com
Crowded.com
nexxt.com-
taskrabbit.com-
getacoder.com,
vworker.com,
scriptlance.com
cloudpeeps.com-
servicescape.com
contena.co
freelancewriting.com
programmermeetdesigner.com

অনলাইনে কাজ করতে কি লাগবে?

আপনি যদি নিজেকে অনলাইন মার্কেটে প্রতিষ্ঠিত করতে চান তাহলে অবশ্যই আপনার প্রয়োজন
– ডেক্সটড কম্পিউটার/ লেপটপ
– ইন্টারনেট কানেকশন
– আপনি যে বিষয় নিয়ে ক্লায়েন্টের কাজ করতে চান সে বিষয়ে পর্যাপ্ত জ্ঞান
– অনলাইনের খুটি-নাটি বিষয় জানা।

অনলাইনে কি আসলেই আয় করা সম্ভব?

হ্যাঁ সম্ভব। এ জন্য প্রয়োজন আপনার ধৈর্য, ইচ্ছাশক্তি, সময় আর কাজের দক্ষতা। দক্ষতা হলো জীবনের মূলশক্তি। যে কাজে আপনি যত দক্ষ হবেন সে কাজে সফলতা তত দ্রুত আসবে। তাই
আগে নিজেকে সফলতার শিখরে নিয়ে যেতে কাজ শিখুন, তারপর অনলাইনে কাজ করতে আসুন। অনলাইনে ইনকাম করার অনেক ভিডিও টিউটোরিয়াল আপনি ইউটিউব, ওয়েবসাইট ও ফেসবুকে পাবেন। আপনি চাইলে সেখান থেকে ফ্রি শিখতে পারবেন অথবা বাংলাদেশে প্রচুর ট্রেনিং সেন্টার রয়েছে যারা হাতে কলমে প্রশিক্ষণ প্রদাণ করে থাকে। বর্তমান বাংলাদেশে বিশ্বসেরা ফিল্যান্সার রয়েছে যারা সারা বিশ্বে বাংলাদেশের সুনাম ছড়িয়েছে। তাই বলতে চাই, আপনি বা আপনারা আগে নিজেকে যোগ্য করে তুলতে কাজ শিখুন। কাজ শিখার কোন বিকল্প নাই। কারো কথা শুনে আপনি ওই কাজ শিখবেন না। আপনার ডেডিকেশন ঠিক করুন। কোন কাজটা আপনি ফেক্সিবল মনে করেন? কোন কাজটা আপনার মেধার সাথে মনন ঘটায়? সেটাই নিয়েই এগিয়ে যান। যা শিখবেন তা অবশ্যই আপনার মেমরিতে নোট করে রাখবেন। প্রশিক্ষণরত অবস্থায় বেশি করে প্র্যাকটিস করুন।

অনলাইনে কি কি কাজ পাওয়া যায়?

১) ওয়েব ডেভেলপমেন্ট ও সফটওয়্যার

-ওয়েব ডিজাইনিং
-সফটওয়ার ডেভেলপমেন্ট
-ওয়েবসাইট ডেভেলপমেন্ট
-এন্ড্রয়েট এ্যাপস
-কোম্পানি সঢটওয়্যার ইত্যাদি

২) অডিও এবং ভিডিও প্রোডাকশন

-ইউটিউব চ্যানেল
-ফেসবুক

৩) এসইও (সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন) কাজ

৪) মার্কেটিংয়ের কাজ

-এফিলিয়েট মার্কেটিং
-ডিজিটার মার্কেটিং
-ইমেইল মার্কেটিং

৫) এডিটিংয়েরকাজ

-এনিমেশন, 3D, 2D
-ভিডিও এডিটিং

৬) অন্যান্য কাজ

-এড পোস্টিং সম্পর্কিত কাজ
-ক্রাগলিস্ট সহ বিভিন্ন সাইটে বিজ্ঞাপনের কাজ
-ট্রান্সলেশন
-আইটি ও নেটওয়ার্কিং
-কাস্টমার সার্ভিস
-সেলস এবং মার্কেটিং
-কনসালটেশন এবং অ্যাকাউন্টিং
-ডাটা সাইন্স ও এনালাইটিক্স
-ইঞ্জিনিয়ারিং এবং আর্কিটেকচার ইত্যাদি

৭) অ্যাডমিন কাজ

-ডাটা এট্রি
-ট্রান্সক্রিপশন
-ভারচুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্স
-লিড জেনারেশন
-প্রোজেক্ট ম্যানেজমেন্ট
-ডাটা মেনেজম্যান্ট
-ইন্টারনেট রিসার্চ

৮) ডিজাইনের কাজ

-গ্রাফিক্স ডিজাইন
-লোগে ডিজাইন
-এ্যানিমেশন
-ব্যানার ডিজাইন
-টি-শার্ট, প্যান্ট, শাড়ি ইত্যাদি ডিজাইন

৯) কনটেন্ট সম্পর্কিত কাজ

-আর্টিকেল রাইটিং
-সি.ভি ও কভার লেটার রাইটিং
-গ্রান্ট রাইটিং
-বিজনেস রাইটিং
-একাডেমিক রাইটিং

এছাড়াও ডাক্তার, ব্যবসায়ী, এ্যাডভোকেট, ও অন্যান্য পেশার প্রচিুর কাজ রয়েছে অনলাইন মার্কেট প্লেসে। সবাই ভালো থাকবেন। অন্যদিন নতুন কোন বিষয় নিয়ে আপনাদের সামনে হাজির হবো। আমাদের লেখাটি যদি আপনার বিন্দু মাত্র উপকারে আসে তাহলে কমেন্ট করে জানাবেন। আপনার অনুপ্রেরনাই Job N Style পাথেয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Recent Posts

Popular posts:

google ad

Calender

July 2020
M T W T F S S
 12345
6789101112
13141516171819
20212223242526
2728293031