জেনে নিন সফল হওয়ার কৌশল

Published Date: Monday, December 2, 2019

মানুষের চাহিদার সোপানের প্রথম ধাপ হচ্ছে সফল হওয়ার কৌশল- সাফল্য। সাফল্যতা চায় না এমন মানুষ পৃথিবীতে নেই, প্রতিটি মানুষ ই সাফল্যতা চায়, চাইলেইতো মানুষের কাছে সাফল্যতা আসে না, তার জন্য তাকে কাজ করতে হয়, দিনরাত পরিশ্রম করতে হয়। আবার পরিশ্রম করলেই কি সফলতা আসে? না সফলতা আনতে হলে কিছু ভাল অভ্যাস ও কৌশল অবলম্বন প্রয়োজন। এই অভ্যাস গুলোই আপনার কাজের গতিময়তা এনে আপনাকে সাফল্যের দিকে পৌঁছে দিবে। চলুন জেনে নেই কিভাবে সফলতার অভ্যাসগুলো আনা যায়ঃ

(১) সকালটা শুরু করুন নিজের ভিতরের শক্তি এবং উদ্দেশ্যর সাথেঃ- প্রতিদিন সকালই বয়ে আনে একটি নতুন দিনের বার্তা, তাই দিনটা শুরু করতে হবে নতুন কাজের বা কাজের জন্য একটি সঠিক লক্ষ্য রেখে, আজকে আপনি কোন কোন কাজ করবেন কিভাবে করবেন তার লক্ষ্য আগে থেকে ঠিক করবেন। যদি কাজটার লক্ষ্য বা উদ্দেশ্য ঠিক থাকে তবে কাজটা সফল হবে। প্রতিটি সফল মানুষের সফলতার পিছনের গল্প এটাই। আপনি আপনার দিনটা শুরু করুন আপনি কি কাজ কখন কিভাবে করবেন তার ছক একে। এবং এই কাজে কতটুকু সফলতা বিফলতা পাবেন তার হিসাব করুন এতে কাজটি সফল হবে।

(২) আপনার ভাল গুন বা অভ্যাস গুলো বার করুনঃ-
প্রতিটি মানুষের ভিতর ভাল খারাপ ২ টাই রয়েছে, আপনি আপনার ভিতরের ভাল অভ্যাস গুলো চিহ্নিত করুন এবং আপনি নিজের কাজকে নিয়ে চিন্তা করে বার করুন কিভাবে কাজ করবেন। ধরুন আপনি জানেন না আপনি কিভাবে কাজটা করবেন এতে করে আপনি হাজার গুন পিছিয়ে গেলেন সফলতার থেকে। তাই আগে আপনি সঠিক চিন্তা করে বার করুন আপনার কার্যক্ষমতা কতটুকু এবং কিভাবে আপনি কাজটা করবেন।

(৩)প্রতিটি পদক্ষেপের বিচার করুন এবং লক্ষ্য করুনঃ- আপনাকে আগে ভাবতে হবে আপনি এই কাজ কেন করছেন? এই কাজে কতটুকু সফলতা পাবেন? সঠিক হবে কিনা? আপনার নিজের কাজের প্রতি নিজেকে সবসময় খেয়াল করে চলতে হবে, নিজের কাজের ভুল নিজেকে বার করতে হবে, প্রতিটি কাজের পদক্ষেপ ঠিক ভাবে যাচাই করুন,ভুল গুলোকে সঠিক ভাবে চিহ্নিত করুন, এমনকি নিজের প্রতি যত্নের ক্ষেত্রে ও সবসময় সঠিক পদক্ষেপ রাখতে হবে।আপনার কাজের সুবিধা আপনি নিজে খুঁজে বার করবেন অন্যরা আপনার কম্ফোর্ট জোন জানে না।

(৪) একটি ভাল অভ্যাস প্রতিদিন কাজের তালিকায় থাকতে হবেঃ- প্রতিদিন আমরা হাজার রকম কাজ করি ঐ কাজগুলোর ভিতর একটা কাজ বা ভাল অভ্যাস প্রতিদিন করুন,সেটা আপনার নিজের স্বাস্থ্য সম্পর্কিতও হতে পারে আবার ব্যাবসা বা চাকরি সম্পর্কিতও হতে পারে,খুব সাধারণ কাজ হলেও করুন,যদি কাজটা না করেন তবে আপনি পিছিয়ে পরবেন,ধরুন আপনি বই পড়তে পছন্দ করেন গান শুনতে লিখতে প্রতিদিন একটু সময় করে সেগুলো করুন এতে আপনার সফলতা আসবে।

(৫) ভবিষ্যত কাজের পরিকল্পনা করাঃ- আপনি নিজেকে ১ বছর পর কোথায় কি অবস্থায় দেখতে চান তার ছোট ছোট পরিকল্পনা করুন, কেীশল অবলম্বন করুন এবং এগুলো কখন কিভাবে কোথায় করবেন তার চাট আকারে তৈরি করে কাজ করুন আস্তে আস্তে কাজটার সফলতা পাবেন, প্রতিদিন নিজেকে সৎ রাখুন ইবাদাত করুন স্রষ্ঠার প্রতি।সকল কাজ সময় অনুযায়ী শেষ করুন।

পিতা ও পুত্রের অংকের সমাধান

(৬) আপনার সফলতায় যেন আবেগ না আসেঃ- একটি কাজে সফল হবার জন্য আপনাকে দিনরাত পরিশ্রম করতে হয়, আপনি যদি আপনারা কাজটাকে ভাল না বাসেন সম্মান না করেন তবে আপনার আশেপাশের কেউ আপনাকে গ্রহণ করবেন না। নিজের প্রতি নিজের কনফিডেন্স আনতে হবে। আবেগকে কাজের মাঝে জায়গা দিলে সফলতা আসবে না।আপনার কাজটা আপনি কিভাবে করবেন কতটুকু করবেন সেটা শুধু আপনিই জানেন অন্যরা না, তাই আপনার কাজের দায়ভার আপনারই।আবেগ করে কাজটা ফেলপ রাখলে আপনার ই ক্ষতি।

(৭) নিজেকে নিজে মোটিভট করুনঃ- আপনি আপনার কাজের পরিসিমা যানেন আপনি জানেন কতটুকু করবেন যদি কাজের গতি থেমে যায় তবে নিজেকে নিজে মোটিভেট করুন, কাজ করতে করতে আপনি সফলতা পেলেন এবার তাড জন্য নিজেকে এন্টারটেইনি করুন মুভি দেখুন শপিং করুন বই কিনুন রেস্তোরাঁয় যান।

(৮)প্রতিদিনের জরুরি অভ্যাস গুলোর তালিকা আগে করুনঃ- আপনার জীবনের প্রতিটি দিনই জরুরি সেই জরুরি দিন গুলোর ভিতর থেকে সবচেয়ে জরুরি কাজ গুলো তালিকা তৈরি করে প্রতিদিন সবার আগে জরুরি কাজ গুলো শেষ করুন। এবং নিজের প্রতি কন্ফিডেন্স তৈরি করুম সফলতা আসবেই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Popular posts:

google ad

Calender

November 2020
M T W T F S S
 1
2345678
9101112131415
16171819202122
23242526272829
30